ঘরেই বানান রেস্তোরাঁর স্বাদে স্বাস্থ্যকর হালিম

Spread the love

হালিম খেতে পছন্দ করেন না এমন বাঙালি বোধহয় কমই আছেন। রোজায় ইফতারে কিন্তু হালিম থাকা চাই ই চাই। ইফতারে সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর খাবার হিসেবে হালিমের কদর রয়েছে বেশ।

রমজানে ইফতারের টেবিল হালিম ছাড়া যেন অসম্পূর্ণ। তবে রোজ রোজ তো আর বাইরে থেকে এনে খাওয়া সম্ভব হয় না। এটি স্বাস্থ্যকর ও নয়। তাই ঘরেই চট করে তৈরি করে নিন সহজ উপকরণে মজাদার চিকেন হালিম ও আলুর নান।

উপকরণ

ওটস ১ কাপ, মসুর ডাল ২ টেবিল চামচ, মুগ ডাল ২ টেবিল চামচ, মুরগির মাংস হাড়সহ ছোট করে কাটা ২ কাপ, মিহি কুচি করা বড় পেঁয়াজ ২টি, হলুদ দেড় চা চামচ, মরিচ-গুঁড়া ১ চা চামচ, জিরাগুঁড়া ১ চা চামচ, আদাবাটা ১ টেবিল চামচ, রসুনবাটা ১ চা চামচ, গরম মসলাগুঁড়া ১ চা চামচ, পাঁচফোড়নগুঁড়া আধা চাচামচ, আদাকুচি ১ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ ৬-৭টি, কাঁচা মরিচ-কুচি ১ চা চামচ, পুদিনাপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, লেবু ১টি।

প্রণালি
প্রথমে গরম পানিতে ওটস ভিজিয়ে রেখে দিন। মসুর ডাল আর মুগ ডাল ধুয়ে ভালোভাবে সেদ্ধ করে নরম করে নিন। এই সেদ্ধ ডালের সঙ্গে ভেজানো ওটস মিশিয়ে দিন। এবার চুলায় একটি কড়াইয়ে তেল গরম করে ১ টেবিল চামচ পেঁয়াজ কুচি সোনালি করে ভেজে এরপর হলুদ, মরিচ, আদা, রসুন, লবণ দিয়ে কষিয়ে মুরগির মাংস ভালো করে রান্না করে নিন। রান্না হয়ে এলে এতে সেদ্ধ করা ডাল ও ওটস এর মিশ্রণ দিয়ে ভালোভাবে নেড়ে প্রয়োজনমতো পানি ও লবণ দিয়ে দিন।

এবার এতে ৬/৭টি কাঁচা মরিচ দিয়ে দিন। পানি শুকিয়ে এলে জিরাগুঁড়া, পাঁচফোড়নগুঁড়া ও গরম মসলাগুঁড়া দিয়ে দিন। ওটস দেওয়ায় হালিমে ঘনত্বটা বেড়ে একটু আঠালো হয়ে আসবে। এবার কিছু পেঁয়াজ বেরেস্তা করে নিন হালিমের ওপরে দেওয়ার জন্য।  এরপর পরিবেশনের সময় হালিমের ওপর বেরেস্তা দিয়ে এবং ইচ্ছেমতো পুদিনা পাতা, আদাকুচি, লেবু দিয়ে দিন।

Leave a Reply